দুর্গাপুরের ফরিদপুর থানার চন্দ্রডাঙা গ্রামে প্রধানমন্ত্রীর কথায় আলো জ্বালাতে গিয়ে আক্রান্ত পরিবার – পুড়িয়ে দেওয়া হলো তাঁর গুড় তৈরির কারখানা !

0
88

নিজস্ব সংবাদদাতা ::নিউজ ২০ টোয়েন্টি :: ৬ই, এপ্রিল :: দুর্গাপুর :: প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে রাত 9 টায় আলো নিভিয়ে মোমবাতি জ্বালিয়েছিলেন দুর্গাপুরের ফরিদপুর থানার চন্দ্রডাঙা গ্রামের উদয় নাম এক ব্যক্তি ।

৩রা এপ্রিল প্রধান মন্ত্রী জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়ে দেশবাসীর কাছে আবেদন করেন রবিবার ৫ই,এপ্রিল রাত নটার সময় নয় মিনিট প্রত্যেকের বাড়ির আলো নিভিয়ে গৃহের প্রবেশ পথে অথবা ব্যালকনি থেকে আলোক বর্তিকা প্রজ্বলিত করে তাঁর দেওয়া একাত্মবোধের আবেদনে সাড়া দেবেন ।এই ডাকে সাড়া দিয়ে উদয় বাবু তাঁর বাড়ির এল নিভিয়ে দিয়ে এবং তাঁর গুড় তৈরির কারখানার আলোও নিভিয়ে মোমবাতি জ্বালিয়ে ছিলেন তিনি ও তাঁর পরিবারের লোকেরা । অভিযোগ গুড় তৈরির পাত্র থেকে ধোঁয়া বেরোচ্ছেঅভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল নেতা অসিত হাজরা ওরফে পটল হাজরার নেতৃত্বে 32 জন তাঁদের উপর চড়াও হয় । আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয় তাঁদের গুড়শালায় ।

মারধর করায় মাথা ফাটে উদয় পাল নামে এক যুবকের । তাঁর দাদাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ । এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থানে ফরিদপুর থানার পুলিশ পৌঁছায় । জখম ওই যুবককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় । উদয় বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর কথামতো রাত 9 টায় আমাদের গুড়শালের আলো নিভিয়ে দিয়েছিলাম । এলাকার পঞ্চায়েত সদস্যার স্বামী অসিত হাজরা দলবল নিয়ে এসে চড়াও হল । কোনও কিছু না বলেই আমার দাদাকে মারধর করতে শুরু করে । দাদাকে বাঁচাতে গেলে আমাকেও মারধর করা হয় । ইট, লাঠি দিয়ে মারায় মাথা ফেটে যায় । আমরাও তৃণমূলের সমর্থক ।

দুর্গাপুরের “ফরিদপুর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি সুজিত মু্খোপাধ্যায় বলেন, “এই ঘটনায় রাজনৈতিক কোনও যোগ নেই । এরা জাম্পার নামিয়ে গোটা গ্রামের বিদ্যুৎ বন্ধ করে দেন । আর সেই কারণে গ্রামের লোক ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন । পুলিশি তদন্ত চলছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here