কেন্দ্র বলছে আপাতত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই -এই নিয়ে গুজব বন্ধ না হলে কঠোর শাস্তি হতে পারে !

0
123

রাজীব গুপ্ত :: নিউজ ২০ টোয়েন্টি :: ৩১শে মার্চ ::কোলকাতা :: ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গউবা বলেছেন, করোনা নিয়ে যেভাবে গুজব, অসত্য সংবাদ প্রচারিত হচ্ছে সেটা উদ্বেগজনক। তাই সরকার স্পষ্ট জানাতে চায়, লকডাউনের সময়সীমা এখনও ১৪ এপ্রিল পর্যন্তই সীমাবদ্ধ রয়েছে। মেয়াদ বৃদ্ধি নিয়ে কোনও আলোচনাই হয়নি। করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত গুজব বৃদ্ধির প্রবণতা নিয়ে কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারগুলি অত্যন্ত সমস্যায় পড়েছে।

                                     ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গউবা

প্রধানমন্ত্রী বারংবার বলেছেন গুজব না ছড়াতে। আজ ক্যাবিনেট সচিবও সেকথা আবার জানিয়েছেন। অন্যদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার উপর নজরদারি রাখা হচ্ছে। রাজ্য সরকারগুলিকে এ বিষয়ে বিশেষ নির্দেশিকাও দেওয়া হয়েছে। রাজ্য পুলিসের সাইবার ক্রাইম সেল সোশ্যাল মিডিয়ার উপর নজরদারি করছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট আইন এবং তথ্য প্রযুক্তি আইনকে ব্যবহার করে করোনা নিয়ে গুজব ও মিথ্যা সংবাদ ছড়ালে গ্রেপ্তার করা হবে। কেন্দ্রীয় সরকার লাগাতার আবেদন করছে, করোনা সংক্রান্ত কোনও তথ্য যাচাই না করে শেয়ার করতে।অন্যদিকে করোনা সংক্রমণের প্রবণতা বেড়ে চলায় এবার কেন্দ্রীয় সরকার ক্লাস্টার আইসোলেশনের সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজ্যগুলির সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেছে। গতকালই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। অর্থাৎ যে রাজ্যগুলিতে আচমকা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে দেখা যাচ্ছে, তার মধ্যে ঠিক কোন এলাকায় সংক্রমণ বেশি এটা যাচাই করে, সামগ্রিক লকডাউনের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সেই এলাকাগুলিকে বিশেষ আইসোলেশনে রাখার ব্যবস্থা করা হতে পারে। রাজ্যগুলির সঙ্গে সমন্বয় করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আমরা বারংবার বলে আসছি এবং আমাদের সাংবাদিকরাও রাস্তায় খবরের জন্য বেরোলে প্রায়শই দেখতে পাচ্ছেন যে লকডাউনের বিধিকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে প্রচুর মানুষ রাস্তায় এবং অন্যান স্থানে জমায়েত করছেন । এই বিষয়ে আশা করাযায় ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনারেট ও কল্যাণী থেকে ভাটপাড়া পর্যন্ত সব স্তরের রাজনৈতিক নেতারা একটু তৎপর হবেন । দয়াকরে বাড়ির বাইরে যাবেননা – আপনি বাঁচুন দেশ ও পরিবারকে বাঁচান

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here